কিভাবে ফেসবুক পেজের মনিটাইজেশন অন করবেন? [স্টেপ বাই স্টেপ গাইড]

তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে মানুষ এখন অনলাইনকে শুধু তথ্য জানার জন্য ব্যবহার করে না। অনলাইনে বিভিন্ন উপায়ে অসংখ্য ফ্রিল্যান্সার এখন ঘরে বসেই প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছেন।

অনলাইনে যতগুলো আয় করার উপায় রয়েছে তার মধ্যে ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করে উপার্জন করা একটি।

আপনি চাইলে এখন আপনার ফেসবুক পেজটিতে রেগুলার ভিডিও আপলোড করে সেই সব ভিডিওর ভিউয়ের উপর ভিত্তি করে অনেক টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

এই আর্টিকেলটি পড়া শেষে আপনি কিভাবে ফেসবুক পেজের মনিটাইজেশন অন করতে হয় বা ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন করার নিয়ম কি, ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার যোগ্য কিনা তা বুঝবো কি করে ইত্যাদি এসব বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

 

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার যোগ্য হয়েছে কিনা তা বুঝবো কি করে?

 

আপনার ফেসবুক পেজটি মনিটাইজেশন (Facebook Page Monitization) অন করার যোগ্য হয়েছে কিনা তা বুঝার কিছু সহজ ও নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে।

প্রথমত, আপনার ফেসবুক পেজটিতে ১০ হাজার ফলোয়ার থাকতে হবে। তবেই আপনি ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের একটি ধাপ পূরণ করে থাকবেন।

দ্বিতীয়ত, আপনার ফেসবুক পেজের ভিডিও গুলো লাস্ট বা গত তিন মাসে ৬০ হাজার মিনিট দেখতে হবে (এটা আপনার দেখতে হবে না, আপনার ভিডিও গুলো ভিউয়ারদের দেখতে হবে)।

উপরোক্ত দুটো রিকুয়ারমেন্ট যদি আপনি ফুলফিল করে থাকেন আপনার পেজে এবং আপনার পেজে যদি কপিরাইট জনিত কোনো ইস্যু না থাকে তাহলেই বুঝতে পারবেন যে আপনার ফেসবুক পেজটি মনিটাইজেশন অন হওয়ার যোগ্য হয়েছে।

 

ফেসবুক পেজে কোন মনিটাইজেশন ইস্যু থাকলে তা বুঝবো কি করে?

 

ফেসবুক পেজে কোন মনিটাইজেশন ইস্যু (Monitization Issue) আছে কিনা তা বুঝার জন্য কিছু নিয়ম রয়েছে যা নিচে বর্ণনা করা হয়েছে।

যেভাবে বুঝবেন যে আপনার ফেসবুক পেজে কোন মনিটাইজেশন ইস্যু আছে কিনা:

  • প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজটিতে প্রবেশ করবেন।
  • সেখানে মনিটাইজেশন নামের একটি অপশন পাবেন সেটিতে প্রবেশ করবেন।
  • তারপর মনিটাইজেশন লেখাটির পাশেই একটি বৃত্ত দেখতে পাবেন।
  • এই বৃত্তটি যদি হলুদ রংয়ের হয়ে থাকে তাহলে বুঝবেন আপনার পেজটিতে অল্প কিছু সমস্যা আছে যা সমাধান হয়ে গেলেই আপনার পেজটি মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  • এই বৃত্তটি যদি লাল রংয়ের হয়ে থাকে তাহলে বুঝবেন আপনার পেজটি এই মুহূর্তে মনিটািইজেশনের জন্য প্রস্তুত নয়।
  • এই বৃত্তটি যদি সবুজ রংয়ের হয়ে থাকে তাহলে বুঝবেন আপনার ফেসবুক পেজটি মনিটাইজেশনের জন্য প্রস্তুত আছে। আপনি চাইলেই পেজটিতে মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

 

ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন অন করার জন্য আবেদন করার নিয়ম

 

এতক্ষণ আমরা ফেসবুক পেজের মনিটাইজেশন সংক্রান্ত নিয়ম-কানুন নিয়ে আলোচনা করলাম। এবার আমরা দেখবো যে আপনি কিভাবে ফেসবুক পেজের মনিটাইজেশন অন করবেন

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম:

ধাপ ০১:  প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজটিতে প্রবেশ করবেন।

ধাপ ০২: ফেসবুকে পেজে প্রবশ করার পর দেখবেন View Tools নামের একটি অপশন রয়েছে, সেটিতে ক্লিক করবেন।

ধাপ ০৩: View Tools এ যাওয়ার পর আপনার সামনে অনেক গুলো অপশন আসবে। সেখানে Monitization নামের একটি অপশন থাকবে আপনি সেটিতে ক্লিক করবেন।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

ধাপ ০৪: Monitization এ ক্লিক করার পর আপনার সামনে একটি পপ আপ উইনডো আসবে। সেখানে Get Started লেখা থাকবে, আপনি সেটিতে ক্লিক করবেন।

ধাপ ০৫: Get Started এ ক্লিক করার পর আপনার সামনে নিচের ছবিটির মতোন একটি ইন্টারফেস আসবে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

এখানে In-stream ads অপশনটির পাশে Set up লেখাটিতে ক্লিক করবেন। ক্লিক করার পরে আপনার সামনে আবারও Get Started নামের একটি অপশন আসবে সেটিতে ক্লিক করবেন।

 

ধাপ ০৬: এবার আপনার সামনে নিচের ছবিটির মতোন একটি ফর্ম আসবে, আপনাকে সেটি পূরণ করতে হবে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

যেভাবে ফর্ম পূরন করবেন:

  • Legal first name এ আপনার নামটি দিবেন এবং Legal surname এ আপনার surname নেমটি দিবেন। যেমন: আপনার নাম যদি হয় আব্দুর রহমান কাশেম। তাহলে Legal first name দিবেন ‘আব্দুর রহমান’ ও Legal surname এ দিবেন ‘কাশেম’।
  • তারপর Date of birth এ আপনার জন্ম তারিখ দিবেন।
  • Country অপশনে আপনি যে দেশ থেকে ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতেছেন সেটি সিলেক্ট করে দিবেন।
  • সব তথ্য দেওয়ার পর নিচে Next নামে একটি অপশন পাবেন সেটিতে ক্লিক করতে হবে।

বি:দ্র: এই ফর্মে যে সব তথ্য গুলো দিবেন সেগুলো যাতে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অনুসারে দেওয়া থাকে। যদি আপনার নিজের কোন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট না থাকে তাহলে আপনি বিশ্বস্ত কারও ব্যাংক একাউন্টও এখানে ব্যবহার করতে পারবেন কোন সমস্যা হবে না।

 

ধাপ ০৭ : Next এ ক্লিক করার পরে আপনার সামনে নিচের ছবিটির মতোন একটি ইন্টারফেস আসবে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

এখানে প্রথম অপশনটিতে আপনি যে দেশকে প্রথমে সিলেক্ট করেছিলেন সেটি অটো সিলেক্ট করা থাকবে। এবং অপশনটি হচ্ছে Business type, এখানে ক্লিক করে আপনার পেজটি কি রিলেটেড তা সিলেক্ট করে দিবেন। তারপর আবার Next বাটনে ক্লিক করে দিবেন।

 

ধাপ ০৮: এবার আপনার যে ইন্টারফেসটি আসবে এখানে আপনার নাম পূর্বে থেকেই দেওয়া থাকবে। আপনাকে শুধু এখানে আপনার Primary address টা দিতে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

এখানে প্রথমে আপনি যে শহরে থাকেন সেটি দিবেন।

তারপর  যে বিভাগে থাকেন সেটি সিলেক্ট করে দিবেন।

আপনার এলাকার পোস্টকোড (Postcode) টি দিবেন।

একটি ফোন নাম্বার দিবেন।

একটি ইমেইল এড্রেস দিবেন।

এবং সবশেষে আপনাকে টিআইএন বা টিন নাম্বার দিতে হবে। টিন বা TIN এর ফুল ফর্ম হচ্ছে Tax Identification Number । এখন অনেকের মনে একটি প্রশ্ন জাগতে পারে যে এই টিন নাম্বার কি বা এটি কোথায় পাবো।

এ বিষয়ে আমি ইতিমধ্যে একটি আর্টিকেলে ‘কিভাবে অনলাইনে ই টিন সার্টিফিকেট তৈরি করবো?’ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আপনি সেই আর্টিকেলটি পড়লেই টিন বা ই-টিন সার্টিফিকেট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

টিন নাম্বার দেওয়ার পর আপনার সামনে VAT/GST registration number নামের একটি অপশন আসবে যা অপশনাল, আপনি না দিলেও সমস্যা নেই।

সব তথ্য দেওয়া হয়ে গেলে শেষে দেখবেন নিচের ছবিটির মতোন একটি টিক বক্স রয়েছে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

বক্সটিতে টিক করে দিবেন এবং তারপর Next বাটনে ক্লিক করবেন।

 

ধাপ ০৯: Next এ ক্লিক করার পর আপনার সামনে নিচের ছবিটির মতোন একটি ইন্টারফেস আসবে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

এখানে আপনাকে একটি Payout Method যুক্ত করতে বলতেছে অর্থাৎ কিসের মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে চাচ্ছেন।

এখানে দুটো দেওয়া রয়েছে। একটি হচ্ছে ব্যাংক একাউন্টের (Bank Account) মাধ্যমে এবং আরেকটি হচ্ছে PayPal account এর মাধ্যমে।

আমাদের দেশে যেহেতু পেপাল নেই তাই আমরা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অপশনটি সিলেক্ট করবো।

ব্যাংক একাউন্ট অপশটিতে সিলেক্ট করার পর আপনার কাছে কিছু ইনফরমেশন বা তথ্য চাইবে সেগুলো দিবেন।

যেমন: Account holder name, Swift code, Bank account number ।

আপনি আপনার ব্যাংক একাউন্টের Swift code না জেনে থাকলে যে শাখায় আপনার ব্যাংক একাউন্টি তৈরি করেছেন সেখানে গিয়ে জিজ্ঞেস করলেই আপনাকে সেই ব্যাংকের Swift code বলে দিবে।

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নিয়ে কিছু কনফিউশন: অনেকে ব্যাংক একাউন্ট নিয়ে অনেক কনফিউশনে থাকে যে আমার তো ইসলামি ব্যাংকে একাউন্ট সেটি দিতে পারবো কিনা অথবা আমি একদম লোকালি একাউন্ট তৈরি করেছি হতে পারে তা জনতা ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক ইত্যাদি এগুলো দিতে পারবো কিনা। এই সব গুলো প্রশ্নের উত্তর এক কথায় বললে, আপনি সরকারি-বেসরকারি যে কোন ব্যাংক একাউন্টই এখানে যুক্ত করতে পারবেন, কোন সমস্যা হবে না।

সব তথ্য দেওয়া হয়ে গেলে নিচে Link payout method নামের একটি অপশন পাবেন সেটিতে ক্লিক করবেন।

 

ধাপ ১০: Link payout method অপশনে ক্লিক করার পর আপনার সামনে নিচের ছবিটির মতোন একটি ইন্টারফেস আসবে।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

 

এখানে Add tax info নামের অপশনটিতে ক্লিক করবেন। তারপর আপনাকে কিছু প্রশ্ন করা হবে সেগুলোর উত্তর Yes অথবা No দিয়ে দিবেন।

আপনার সুবিদার্থে প্রশ্ন গুলো নিচে তুলে দেওয়া হলো:

প্রশ্ন ০১: What is your tax classification?

উত্তর: এটির উত্তর বাই ডিফল্ট সেখানে সিলেক্ট করাই থাকবে।

প্রশ্ন ০২: Are you a U.S citizen, U.S. permanent resident (green card holder) or other U.S. resident alien?

উত্তর: আপনি যদি আমেরিকান নাগরিক বা গ্রিন কার্ড হোল্ডার হয়ে থাকেন তাহলে এই প্রশ্নে উত্তরে Yes অপশনে ক্লিক করবেন অথবা আপনার উত্তর যদি না হয় তাহলে No অপশনে ক্লিক করবেন।

প্রশ্ন ০৩: Are you acting as an intermediary agent, or other person receiving payment on behalf of another person or as a flow-through entity?

উত্তর: আপনার দুই নাম্বার প্রশ্নটির উত্তর যদি No হয়ে থাকে তাহলে এখানে No তে ক্লিক করবেন।

প্রশ্নগুলোর উত্তর দেওয়া হয়ে গেলে নিচে Next নামের একটি বাটন পাবেন সেটিতে ক্লিক করতে তবে।

 

ধাপ ১১: এবার আপনার সামনে কয়েকটি ছোট ছোট সহজ ধাপ আসবে সেগুলো পূরণ করতে হবে।

  • প্রথমে আপনি কোন দেশের নাগরিক সেটি বলবে, আপনি তা সিলেক্ট করে দিয়ে Next এ ক্লিক করবেন।
  • তারপর আপনার সামনে যে ইন্টারফেসটি আসবে সেখানে আপনি পূর্বে এডড্রেসটি দিয়েছিলেন সেটি দেখাবে। এখানেও Next বাটনে ক্লিক করে দিবে।
  • এবার আপনার আপনার এডড্রেসটুকু দেখাবে এখানেও Next বাটনে ক্লিক করবেন।
  • আপনার সামনে নিচের ছবিটির মতোন একটি ইন্টারফেস আসবে।
    ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
    ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

     

    এখানে কিছু অপশন রয়েছে, আপনি প্রথমে 0% যে অপশনটি রয়েছে সেটি সিলেক্ট করে দিয়ে Next এ ক্লিক করবেন।

  • এবার আপনার সামনে যে ইন্টারফেসটি আসবে সেটির নিচের দিকে একটু স্ক্রোল করলে নিচের ছবিতে দেখানো অপশনটি আপনার সামনে আসবে।
    ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম
    ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম

     

    এখানে টিক বক্সটিতে টিক দিয়ে নিচের Signature অপশনটিতে ক্লিক করে আপনি যার নামে ব্যাংক ডিটেইলস দিয়েছেন তার পুরো নামটি এখানে লিখবেন। তারপর Next বাটনে ক্লিক করবেন।

  • এবার আপনার সামনে একটি ফর্ম আসবে এখানে স্ক্রোল করে নিচের দিকে আসলে Submit Form নামের একটি অপশন পাবেন সেটিতে ক্লিক করে দিবেন।

Submit Form এ ক্লিক করলেই আপনার সামনে Your application is being reviewed লেখা সহ একটি ইন্টারফেস আসবে। যার অর্থ হচ্ছে আপনার ফেসবুক পেজের মনিটাইজেশন অন করার আবেদনটি ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে চলে গেছে।

তারা এখন আপনার পেজটি রিভিউ করে দেখবে যে আপনার পেজে মনিটাইজেশন অন করে দেওয়া যাবে কিনা। যদি যায় তাহলে আপনার ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন অন করে দিবে। আর যদি না যায় সেটিও তারা জানিয়ে দিবে যে কি কারণে আপনার ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন দেওয়া হয় নাই।

 

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করার কতদিন পর রিপ্লাই দেয়?

 

সাধারণত ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করার ‍১ সপ্তাহ থেকে ৩০ দিনের মধ্যে রিপ্লাই দিয়ে থাকে।

সেজন্য এপ্লাই করার পর প্রথম সপ্তাহে যদি রিপ্লাই না আসে হতাশ হবেন না, ৩০ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

 

ফেসবুক কোন তারিখে পেমেন্ট করে?

 

ফেসবুক ২২ তারিখ থেকে ৩০ তারিখের ভিতর পেমেন্ট করে থাকে। আপনার পেজে যদি মনিটাইজেশন অন হয় এবং ইনকাম শুরু হয় তাহলে আপনি যে ব্যাংক একাউন্টি দিয়েছেন সেটিতে প্রত্যেক মাসের ২২ থেকে ৩০ তারিখের ভিতর পেমেন্ট চলে যাবে।

 

পরিশেষে, আশাকরি আর্টিকেলটি পড়ার পর কিভাবে ফেসবুক পেজের মনিটাইজেশনের অন করবেন বা ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন অন করার নিয়ম সম্পর্কে আপনি বিস্তারিত জানতে ও বুঝতে পেরেছেন।

আপনার যদি এ বিষয়ে আরও কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তা আমাকে কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে জানাতে পারেন। আমি যত দ্রুত সম্ভব আপনাকে রিপ্লাই দেওয়ার চেষ্টা করবো।

Spread the love

হ্যালো "ট্রিকবিডিব্লগ" বাসী আমি ওসমান আলী। দীর্ঘদিন থেকে অনলাইনে লেখালেখির পেশায় যুক্ত আছি। Trick BD Blog আমার নিজের হাতে তৈরি করা একটি ওয়েবসাইট। এখানে আমি প্রতিনিয়ত ব্লগিং, ইউটিউবিং ও প্রযুক্তি সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ টিপস এন্ড ট্রিক্স রিলেটেড আর্টিকেল প্রকাশ করে থাকি।

Leave a Comment