সব সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

আর্টিকেল সূচি

বর্তমান সময়ে প্রায় প্রত্যেকের কাছেই রয়েছে মোবাইল ফোন এবং সেই ফোন গুলো এক বা একাধিক সিম।

অনেকেই প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার আগেই বাবা-মা কিংবা আত্মীয়-স্বজনদের নামে সিম রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন।

পরবর্তীতে যখন নিজেরা প্রাপ্ত বয়স্ক হন তখন নিজের নামে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করে নিতে চান, কিন্তু সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায় না জানা থাকায় করতে পারেন না।

তবে আপনি যদি এই পুরো আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন তবে সব সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায় আপনি জানতে পারবেন এবং খুব সহজেই সিমের মালিকানা পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

চলুন এবার নিচে এক এক সব সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম গুলো জেনে নেওয়া যাক।

 

গ্রামীণফোন বা জিপি সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

আপনি যদি একজন গ্রামীণফোন বা জিপি সিমের ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য সুখবর।

কারণ আপনি গ্রামীণফোন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুব সহজে ঘরে বসেই আপনার কাংঙ্খিত গ্রামীণফোন বা জিপি সিমটির মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন।

নিচে কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে গ্রামীণফোন বা জিপি সিমের মালিকানা পরিবর্তন করবেন সেই প্রক্রিয়াটি দেখানো হলো।

অনলাইনের মাধ্যমে জিপি বা গ্রামীণফোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম নিম্নরূপ:

  • প্রথমে জিপি বা গ্রামীণফোন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ প্রবেশ করুন।
  • তারপর মেনু বার থেকে “Shop” অপশনে ক্লিক করুন।
  • এবার “SIM Services” অপশন সিলেক্ট করুন।
  • তারপর “Transfer of SIM Ownership” এ যান।
  • এবার আপনার সামনে একটি ফর্ম চলে আসবে, এখানে প্রথমে আপনি যে জিপি বা গ্রামীণফোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন সেই জিপি নাম্বারটি দিবেন, তারপর বর্তমানে যার নামে সিমের মালিকানা রয়েছে তার NID Card বা Smart NID Card এর নাম্বার দিবেন এবং তারপর যে সিমের নতুন মালিক হবে তার মোবাইল নাম্বারটি দিয়ে “Add to Card” অপশনে ক্লিক করবেন।
  • এবার আপনাকে “Your Details” অপশনে নিয়ে যাবে। এখানে যার নামে সিমটি বর্তমান রয়েছে তার নাম, যে কোনো একটি জিপি নাম্বার (এই নাম্বারে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হয়ে), ইমেইল এডড্রেস( অপশনাল, না দিলেও সমস্যা নাই), তারপর আপনার সিটি বা ডিসট্রিক্ট সিলেক্ট করে দিবেন, আপনার এলাকার পোস্ট কোড দিতে হবে, এবার আপনি যে ঠিকানায় সিমটি ডেলিভারী নিতে চান সেই ডেলিভারী ঠিকানা দিবেন (এখানে আপনাকে দেখাবে যে, পরবর্তী ২-৩ কর্ম দিবসের মধ্যে আপনার সিমটি ডেলিভারী হয়ে যাবে)। সব তথ্য দেওয়ার “Continue to Review” এই অপশনে ক্লিক করবেন।
  • এবার আপনাকে “Online Payment Method” এই অপশনে নিয়ে যাবে। এখানে আপনাকে বিকাশ, নগদ বা রকেটের মাধ্যমে ডেলিভারী চার্জ হিসেবে ৮০ টাকা প্রদান করতে হবে ( জিপি সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য আপনাকে কোনো টাকা প্রদান করতে হবে না, এই ৮০ টাকা শুধু ডেলিভারী চার্জ হিসেবে নেওয়া হবে।)।

পেমেন্ট করা হয়ে গেলেই আপনার অর্ডারটি কনফার্ম হয়ে যাবে।

যখন ডেলিভারী ম্যান সিমটি নিয়ে আপনার কাছে যাবে তখন সিমের পূর্বের মালিক ও যে নতুন মালিক হবে তাদের উভয়কেই উপস্থিত থাকতে হবে। কারণ সেই ডেলিভারী ম্যান উভয়ের ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিয়ে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করে দিবে।

বি:দ্র: মেট্রোপলিটন শহরে যারা রয়েছেন তারাই শুধু অলনাইনের এই সেবাটি পাচ্ছেন আপাতত।

 

সরাসরি জিপি বা গ্রামীণফোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

সরাসরি জিপি/গ্রামীণফোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম:

সরাসরি জিপি/গ্রামীণফোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য যার নামে মালিকানা রয়েছে এবং যার নামে মালিকানা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন উভয়কেই গ্রামীণফোন এক্সপেরিয়েন্স বা গ্রামীণফোন সেন্টারে যেতে হবে।

এবং যাবার সময় সাথে অবশ্যই উভয়ই পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি করে ছবি ও ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি নিয়ে যাবেন।

 

কিভাবে মৃত জিপি/গ্রামীণফোন সিম ব্যবহারকারীর মালিকানা পরিবর্তন করবো?

 

আপনি যে জিপি/গ্রামীণফোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন সেই ব্যাক্তি যদি মৃত হয়ে থাকে সেই কিছু করণীয় রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি সেই মৃত ব্যাক্তির সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন।

মৃত জিপি/গ্রামীণফোন সিম ব্যবহারকারীর মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম:

যার জিপি/গ্রামীণফোন সিমটি মালিকানা করা হবে তার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং সেই মৃত ব্যাক্তির মৃত্যু সনদপত্র, ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি ওয়ারিশ নামা নিয়ে আপনাকে গ্রমীণফোন এক্সপেরিয়েন্স বা গ্রামীণফোন সেন্টারে যেতে হবে।

সেইখানেই পরবর্তী প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়ে।

এই সেবাটি আপনি বিনামূল্যে পাবেন যদি গ্রামীণফোন এক্সপেরিয়েন্স বা গ্রামীণফোন সেন্টারে গিয়ে থাকেন। আর যদি আপনি গ্রামীণফোন এক্সপ্রেস বা সিম রিপ্লেসমেন্ট পয়েন্ট থেকে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে গিয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনাকে ২০ টাকা চার্জ দিতে হবে।

 

রবি সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

আপনার রবি সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য যার নামে রবি সিমটি বর্তমানে রয়েছে এবং যার নামে পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন উভয়কেই সাথে করে জাতীয় পরিচয় পত্র নিয়ে নিকটস্থ রবি সেবা কেন্দ্র বা বায়ো মেট্রিক রিটেইল পয়েন্টে উপস্থিত থাকতে হবে।

কারণ সেখানে উভয়েরই আঙ্গুলের ছাপ নেওয়া হবে। এবং আপনি এই কাজটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করতে পারবেন, কোনো চার্জ প্রযোজ্য হবে না।

 

কিভাবে মৃত রবি সিম ব্যবহারকারীর মালিকানা পরিবর্তন করবো?

 

আপনি যে রবি সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন সে ব্যক্তিটি যদি মৃত হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আপনি যার নামে সিমটি মালিকানা করে নিবেন তার জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি এবং যার নামে সিমটির মালিকানা ছিল সেই মৃত ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় ফটোকপি, মৃত্যু সনদ, উত্তরাধিকারী সনদ এবং অনাপত্তি সাক্ষর নিয়ে আপনার নিকটস্থ রবি সেবা কেন্দ্রে বা বায়ো মেট্রিক রিটেইল পয়েন্টে উপস্থিত হতে হবে।

এবং পরবর্তী কার্যাবলি সেখানে সম্পাদন করা হবে।

আপনার নিকটস্থ রবি সেবা কেন্দ্রের ঠিকানা জানতে ডায়াল করুন *123*8*4# ।

অথবা আপনার নিকটস্থ রবি সেবা কেন্দ্রের ঠিকানা খুঁজে বের করার জন্য এই Robi Sheba Locator লিংকে যেতে পারেন।

 

এয়ারটেল সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

আপনার এয়ারটেল সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য যেই নামে এয়ারটেল সিমটি মালিকানাধীন রয়েছে এবং যে নামে মালিকানাধীন করে নিতে চাচ্ছেন তাদের উভয়জনের জাতীয় পরিচয় পত্র নিয়ে দুজনকেই নিকটস্থ এয়ারটেল কেয়ার বা বায়ো মেট্রিক রিটেইল পয়েন্টে যেতে হবে।

তার কারণ হচ্ছে, এয়ারটেল সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার সময় উভয়ের আঙ্গুলের ছাপ নেওয়া হবে।

 

কিভাবে মৃত এয়ারটেল সিম ব্যবহারকারীর মালিকানা পরিবর্তন করবো?

 

কোনো মৃত ব্যক্তির নামে যদি এয়ারটেল সিম নিবন্ধিত থাকে আর সেই সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে চান তবে আপনাকে সেই মৃত ব্যক্তির মৃত্যু সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি এবং যার নামে এয়ারটেল সিমটি মালিকানা করে নিবেন তার জাতীয় পরিচয়পত্র সহ আপনাকে নিকটস্থ এয়ারটেলের কাস্টমার কেয়ারে যেতে হবে।

আর পরবর্তী কার্যপ্রণালী সেখানেই সম্পাদন করা হবে।

আপনার নিকটস্থ এয়ারটেল কাস্টমার কেয়ারের ঠিকানা খুঁজে পেতে ডায়াল করতে পারেন *121*6# এই নাম্বারে।

অথবা আপনার নিকটস্থ এয়ারটেল এর কাস্টমার কেয়ার খুঁতে পেতে ভিজিট করতে পারেন “Airtel Care Center” এই ঠিকানায়।

 

বাংলালিংক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

বাংলালিংক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য যার নামে বর্তমানে সিমটির মালিকানা রয়েছে তার জাতীয় পরিচয় পত্র এবং যার নামে বাংলালিংক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করে নিবেন তার জাতীয় পরিচয় পত্র সহ উভয় ব্যক্তিকে, ‘বাংলালিংক মনোব্রান্ড স্টোর’ এ যোগাযোগ করতে হবে।

এবং পরবর্তী কার্যপ্রণালী সেখানেই সম্পাদন করা হবে।

 

কিভাবে মৃত বাংলালিংক সিম ব্যবহারকারীর মালিকানা পরিবর্তন করবো?

 

আপনি যদি মৃত বাংলালিংক সিম ব্যবহারকারীর মালিকানা পরিবর্তন করতে চান তবে সেই মৃত ব্যক্তির মৃত্যু সনদ, জাতীয় পরিচয় পত্র, উত্তরাধীকারীর জাতীয় পরিচয় পত্র এবং উত্তরাধীকারীর প্রসংসা পত্র নিয়ে আপনাকে বাংলালিংক এর অফিসে যেতে হবে।

এবং বাংলালিংক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার পরবর্তী কাজ গুলো সেখানে করা হবে।

বি:দ্র: বাংলালিংক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য আপনাকে কোনো চার্জও প্রদান করতে হবে না।

 

টেলিটক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

টেলিটক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য যার নামে টেলিটক সিমটি নিবন্ধিত করা রয়েছে তার জাতীয় পরিচয় পত্র, এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং যার নামে মালিকানা পরিবর্তন করা হবে তার জাতীয় পরিচয় পত্র ও দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি সহ উভয়কেই নিকটস্থ টেলিটকের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে যেতে হবে।

যদি পূর্বের টেলিটক সিম ব্যবহারকারী কোনো কারণবশত আসতে না পারে তাহলে নতুন যার নামে টেলিটক সিমের মালিকানা করা হবে তার ছবির পিছনে স্বাক্ষর দিয়ে সত্তায়িত করে দিতে হবে এবং সাথে একটি সুপারিশ পত্রও দিতে হবে।

বি:দ্র: টেলিটক সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য আপনাকে কোনো চার্জ প্রদান করতে হবে না।

 

স্কিটো সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায়

 

আপনার স্কিটো সিমের মালিকানা পরিবর্তন সংক্রান্ত তথ্যের জন্য আপনার স্কিটো নাম্বার থেকে 121 অথবা অন্যান্য অপারেটর থেকে 01701000121 এই নাম্বারে কল করলেই আপনার স্কিটো সিমের মালিকানা পরিবর্তন করা সম্পর্কিত সব তথ্য পেয়ে যাবেন।

অথবা স্কিটো সিমের মালিকানা পরিবর্তন সংক্রান্ত বিষয়ের জন্য আরেকটি উপায় আছে সেটি হচ্ছে আপনাকে প্রথমে স্কিটো সিমের অফিসিয়াল এপসটি ইনস্টল করতে হবে আপনার ফোনে, তারপর আপনার স্কিটো নাম্বারটি দিয়ে লগ ইন করে নিবেন।

সেই এপসে “Help” নামের একটি অপশন রয়েছে, সেখান থেকে আপনি সরাসরি স্কিটো সিমের এজেন্টের সাথে চ্যাটিং করতে পারবেন। এবং সেখান থেকেই আপনার স্কিটো সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায় গুলো জানতে পারবেন।

 

সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে কত টাকা লাগে?

 

অনেকেই মনে করতে পারেন যে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে হয়তো অনেক টাকার প্রয়োজন হতে পারে। আসলে এমনটা নয়।

বেশিরভাগ সিম অপারেটর সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য এক টাকাও চার্জ করেন না।

আর আপনি যদি অন্য কোনো জানাশোনা মানুষের মাধ্যমে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করে থাকেন সেক্ষেত্রে সেই ব্যক্তি আপনার কাছ থেকে কিছু টাকা খেলেও খেতে পারে।

তবে আশাকরি এই আর্টিকেলটি পড়ার পরে সব সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ও উপায় সমূহ এখন আপনার জানা হয়ে গেছে। এবং যেকোনো সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য আপনাকে কাউকে বলতে হবে না।

যদি আর্টিকেলটি বুঝতে কথাও সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে আমাকে কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন। আমি যত দ্রুত সম্ভব আপনার কমেন্টের রিপ্লাই দেওয়ার চেষ্টা করবো।

Spread the love

হ্যালো "ট্রিকবিডিব্লগ" বাসী আমি ওসমান আলী। দীর্ঘদিন থেকে অনলাইনে লেখালেখির পেশায় যুক্ত আছি। Trick BD Blog আমার নিজের হাতে তৈরি করা একটি ওয়েবসাইট। এখানে আমি প্রতিনিয়ত ব্লগিং, ইউটিউবিং ও প্রযুক্তি সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ টিপস এন্ড ট্রিক্স রিলেটেড আর্টিকেল প্রকাশ করে থাকি।

Leave a Comment